ঘুষি মেরে রাশিয়ার বিরোধী নেতাকে হত্যা !

  • আপডেট সময় রবিবার, ফেব্রুয়ারি ২৫, ২০২৪
  • 43 পাঠক

————————————————

চাঞ্চল্যকর দাবি মানবাধিকার কর্মীর

————————————————

দিশারী ডেস্ক। ২৫ ফেব্রুয়ারি ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ।

নির্মমভাবে বুকে একটা ঘুষি মেরেই খুুন করা হয়েছে রাশিয়ার বিরোধী নেতা অ্যালেক্সি নাভালনিকে। চাঞ্চল্যকর দাবি করলেন রুশ মানবাধিকার কর্মী ভ্লাদিমির ওসেচকিন। তিনি বলেছেন,  এটি কেজিবির বিশেষ বাহিনীর একটি পুরানো পদ্ধতি। তারা তাদের অপারেটিভদের প্রশিক্ষণ দেয় যে কিভাবে একজন মানুষকে একটি ঘুষি মেরে হৃদযন্ত্র বিকল করে হত্যা করা যায় । এটি কেজিবির একটি বৈশিষ্ট্য ।

ক্রেমলিনের সমালোচক অ্যালেক্সি নাভালনি ১৬ ফেব্রুয়ারী আর্কটিকের পোলার উলফ পেনাল কলোনীতে মারা যান। মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন সহ অনেক বিশ্ব নেতার কাছ থেকে এই ঘটনার জন্য তীব্র নিন্দার মুখে পড়েন রাশিয়ান প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন।

বাইডেন নাভালনির পরিবারের সাথে দেখা করে শোক প্রকাশ করেন। পেনাল কলোনির একটি নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক সূত্রের কথা উল্লেখ করে, ওই মানবাধিকার কর্মী জানান যে নাভালনির শরীরকে দুর্বল করার জন্য তাকে একটি দীর্ঘ সময়ের জন্য ইচ্ছাকৃতভাবে সাবজিরো তাপমাত্রার মধ্যে রাখা হয়েছিলো।

ওসেচকিন মনে করেন , নাভালনিকে দীর্ঘ সময়ের জন্য ঠাণ্ডায় রেখে তার রক্ত ​​​​সঞ্চালনকে কমিয়ে দিয়ে তার শরীরকে ধ্বংস করা হয়েছিলো। নাভালনির মৃত্যুর সঠিক কারণ রহস্যের আড়ালে রয়ে গেছে। রাশিয়ার জেল সার্ভিস এখনও আনুষ্ঠানিকভাবে তার মৃত্যুর কারণ প্রকাশ করেনি।

নাভালনির পরিবারকে দেওয়া একটি মৃত্যুর নোটিশে ” sudden death syndrome ” বলে উল্লেখ করা হয়েছে, এটি এমন একটি শব্দ যা সাধারণত আকস্মিক হৃদরোগজনিত মৃত্যুর সাথে যুক্ত । তার মৃত্যুর এক সপ্তাহ পর নাভালনির পরিবার তার লাশ পায়। নাভালনির পরিবার গোপনে তার অন্ত্যেষ্টিক্রিয়া সম্পন্ন করতে অস্বীকার করলে কারাগারের মধ্যে লাশ দাফনের হুমকি দিয়েছিলো রুশ কর্তৃপক্ষ।
সূত্র : wionews

সংবাদটি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শেয়ার করুন

এ বিভাগের আরো সংবাদ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!